cool hit counter
সর্বশেষ প্রকাশিত

১৭ মে বিশ্ব উচ্চ রক্তচাপ দিবস বা ওয়ার্ল্ড হাইপারটেনশন ডে

দিবসটির এবারের মূল প্রতিপাদ্য: নিজের রক্তচাপ জানুন।

বিশ্বজুড়ে প্রতিবছর যত মৃত্যু হয়, তার ১৮ শতাংশই উচ্চ রক্তচাপজনিত কারণে। বিশ্বের মানুষের একটি বড় অংশ নিজেদের রক্তচাপ সম্পর্কে জানেন না অথবা সামান্য একটু বেশি থাকে বলে নিয়মিত চিকিৎসা নেন না। উচ্চ রক্তচাপ থেকে হৃদ্রোগ, মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ (স্ট্রোক), কিডনির অকার্যকারিতা, অন্ধত্বসহ নানা জটিলতা দেখা দিতে পারে। তাই নিয়মিত রক্তচাপ মাপা এবং তার চিকিৎসা করাটা জরুরি।

images (4)
রক্তচাপ কমাতে ড্যাশ ডায়েট: বিজ্ঞানীরা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে বিশেষ উপায়ে খাদ্যাভ্যাস নিয়ন্ত্রণ (ড্যাশ ডায়েট) পদ্ধতি অনুসরণ করার পরামর্শ দেন। গবেষণায় বলা হয়, এই ডায়েট সঠিকভাবে অনুসরণ করতে পারলে দুই সপ্তাহে রক্তচাপ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।

আসুন,এই ড্যাশ ডায়েট জেনে নিই:
— দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় অবশ্যই কিছু তাজা ফলমূল, সবজি এবং কম ননিযুক্ত দুধ বা দুগ্ধজাত দ্রব্য থাকতে হবে
— চর্বিযুক্ত খাবার এবং ট্রান্স ফ্যাট (যেমন বেকারি বা ফাস্টফুড) বর্জন করতে হবে
— আস্ত শস্য ও বীজজাতীয় খাবার, মাছ, মুরগি এবং বাদাম নিয়মিত খাবেন
— গরু ও খাসির মাংস, চিনিযুক্ত পানীয়, মিষ্টি খাবার যথাসাধ্য বর্জন করুন
— খাবারে লবণের পরিমাণ কমাতে হবে
বিজ্ঞানীরা বলছেন, দৈনিক লবণের পরিমাণ ১৫০০ থেকে ২৪০০ মিলিগ্রামের বেশি না হওয়াই ভালো—মানে সব মিলিয়ে ১ থেকে ২-৩ চামচ। সারা দিনের সব ধরনের খাবার অন্তর্ভুক্ত করেই এই হিসাব করতে হবে।(collected)

Check Also

মাইক্রোওয়েভ ওভেন ব্যবহারের স্বাস্থ্য ঝুঁকি

খাদ্যের ভিটামিন নষ্ট করে- যেসব খাবারে ভিটামিন বি১২ আছে যেমন মাছ,কলিজা ইত্যাদি যখন মাইক্রোওয়েভ অভেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *