cool hit counter
সর্বশেষ প্রকাশিত

নবজাগরণে ঠাকুরবাড়ির মেয়ে-বউরা ৫

পৌলমী দাশ গুপ্ত

ইন্দিরা দেবী চৌধুরাণী
ইন্দিরা দেবী চৌধুরাণী

ইন্দিরা দেবী চৌধুরাণী, সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জ্ঞানদানন্দিনী দেবীর মেয়ে। ২৯ ডিসেম্বর, ১৮৭৩ খ্রিস্টাব্দ ১৫ পৌষ, ১৮২০ বঙ্গাব্দে ইন্দিরা দেবীর জন্ম।

ঠাকুরবাড়ির মেয়েদের মধ্যে তিনিই  প্রথম বি.এ পাশ করেন। তিনি ইংরেজী ও ফরাসী ভাষায় বি.এ পড়েছিলেন।

ইন্দিরার যখন ছাব্বিশ বছর বয়স তখন আইনজীবী, প্রাবন্ধিক প্রমথ চৌধুরীর সঙ্গে তাঁর বিবাহ হয়।

ইন্দিরা দেবী’র  সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি একজন অনুবাদক। ‘সাধনা’ পত্রিকায় তিনি পিয়ের লোতির গল্প ও ভ্রমণবৃত্তান্তের অনুবাদ প্রকাশ করেছিলেন। রবীন্দ্রনাথের গীতাঞ্জলির ফরাসি অনুবাদ করেছিলেন মনীষী আঁদ্রে জিদ। এঁর গ্রন্থের অতিবিখ্যাত ভূমিকা ফরাসি থেকে অনুবাদ করেন ইন্দিরা দেবী। অনুবাদ প্রকাশিত হয়, প্রমথ চৌধুরী সাদিত ‘সবুজপত্র’-এ। রেনে গ্রুসে-লিখিত L’Inde এর বাংলা সঙ্কলনও এই প্রসঙ্গে উল্লেখ্য। এটি প্রকাশিত হয় ‘পরিচয়’ পত্রিকায়।

অনুবাদ প্রসঙ্গে ইংরাজি অনুবাদের কথাও এসে পড়ে। রবীন্দ্রনাথের বহু কবিতার ও রচনার তিনি ছিলেন দক্ষ অনুবাদক। সাধারণত অনুবাদে মূলভাষার রস পরিবাহিত হয় না। কিন্তু ইন্দিরা একদিকে যেমন ইংরেজিতে সুপটু অন্যদিকে রবীন্দ্র-ভাবধারা ও রবীন্দ্র-সাহিত্যের অন্তর্নিহিত রসের সঙ্গে নিবিড় পরিচয় থাকায় তাঁর অনুবাদকর্ম সাহিত্যগুণোপেত হয়ে উঠেছে। রবীন্দ্রনাথ স্বয়ং এই তরজমাগুলি পড়ে যথেষ্ট সন্তোষ প্রকাশ করতেন। তাঁর ‘জাপানযাত্রী’ গ্রন্থের ইন্দিরাই প্রথম ইংরেজি অনুবাদ প্রকাশ করেন।

তাঁর লেখা অন্য বইগুলি সংগীত বিষয়ক। প্রমথ চৌধুরীর সঙ্গে একযোগে লিখিত ‘হিন্দু সংগীত’ গ্রন্থের (১৩৫২ বঙ্গাব্দ) ‘সংগীত পরিচয়’ নামক প্রাথমিক অংশ তাঁর রচনা। ইন্দিরা রবীন্দ্রসংগীতের স্বরলিপি রক্ষা করেছেন। শুধু সুর আর  স্বরলিপি রক্ষা করা নয়, তিনি রবীন্দ্রসঙ্গগীতের তথ্য ও তত্ত্ব দুইটিকেই সমৃদ্ধ্ব করেছেন।

Check Also

ইতিহাসের বিধ্বংসী ভূকম্পন

ভয়াবহ ভূকম্পনে কেঁপে উঠল নেপালসহ ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং চীনের অনেকটা অংশ। ভূমিকম্পের উৎসস্থল নেপাল৷ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *